আল্লাহ তিনি অতি দয়ালু অপরিসীম মেহেরবান..

আল্লাহ তিনি অতি দয়ালু অপরিসীম মেহেরবান..

আল্লাহ অতি দয়ালু এবং অপরিসীম মেহেরবান।

ক. নিশ্চয় তিনি আল্লাহ:

আর-রহমান, আর-রহিম, আল-বার, আল-কারিম, আল-জাওয়াদ, আর-রউফ, আল-ওয়াহহাব,:- এই সমস্ত গুণবাচক নামের অর্থ কাছাকাছি। আর এসবগুলোই আল্লাহ তা'আলাকে তাঁর ব্যাপক দয়া ও অনুগ্রহকে প্রমাণ করে, যা সকল সৃষ্টিজগতকে শামিল করে। তম্মধ্য হতে বিশেষ অনুগ্রহ ও স্পেশাল অংশটি তিনি নির্ধারিত করে রেখেছেন তাঁর ঈমানদার বান্দাদের জন্য। আল্লাহ তা'আলা বলেন: {(আমার রহমত (সাধারণ ভাবে) সকল বস্তুর উপর পরিব্যাপ্ত। অত:পর (কেয়ামতের দিন) তা তাদের জন্য লিখে দেব যারা তাকওয়া অর্জন করে।} [সূরা: আল আ'রাফ, আয়াত: ১৫৬] সকল নেয়ামত, দুনিয়া ও আখেরাতের সব কল্যান ও অনুগ্রহই আল্লাহর রহমত, করুণা ও অস্তিত্বের নিদর্শন এবং দয়া ও বদান্যতার নিদর্শন।

আল্লাহ তিনি অতি দয়ালু অপরিসীম মেহেরবান...

নিশ্চয় তিনি আল্লাহ, অতি দয়ালু, অপরিসীম মেহেরবান...

আল্লাহ তা'আলা নিজের জন্য রহমত গুণকে পছন্দ করেছেন। তাঁর রহমত তাঁর ক্রোধের উপর প্রাধান্য লাভ করেছে। তাঁর রহমত সব কিছুকে বেষ্টন করে নিয়েছে। আল্লাহ তা'আলা বলেন: {নিশ্চয় আল্লাহর করুণা সৎকর্মশীলদের নিকটবর্তী।}
[সূরা: আল-আরাফ, আয়াত: ৫৬]

একজন মহিলা তার শিশুকে যখন দুধ পান করাচ্ছিলেন, তখন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার প্রতি ইঙ্গিত করে বললেন: আমাদের প্রতি সবচেয়ে বেশি দয়ালু হলেন আমাদের মায়েরা।

«তোমরা কি মনে করো, এ ভদ্রমহিলা তার সন্তানকে আগুনে ফেলতে পারে? (সাহাবীরা বললেন) আমরা উত্তরে বললাম, তার দ্বারা এটা অসম্ভব। এরপর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, আল্লাহর শপথ, এই মহিলা তার সন্তানের প্রতি যতটুকু স্নেহশীল ও দয়ালু আল্লাহ তাঁর বান্দাদের প্রতি তার চেয়েও বেশী দয়াবান।» (- বোখারী।)

আল্লাহ অতি দয়ালু এবং অপরিসীম মেহেরবান।

তিনি সমস্ত সৃষ্টির উপর সাধারণ রহমত করেন। কিন্তু বিশেষ রহমত তাঁর মুমিন বান্দাদের জন্য নির্ধারণ করে রেখেছেন। আল্লাহ তা'আলা বলেন: {তিনি মুমিনদের প্রতি পরম দয়ালু।}
[সূরা: আল-আহযাব, আয়াত: ৪৩]

আল্লাহ অতি দয়ালু।

তাঁর রহমতের মধ্যে একটি হলো: মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জগতবাসীর জন্য রহমত এবং পথ প্রদর্শক রূপে প্রেরণ করেছেন। আর তাঁকে তাদের ইহকালীন ও পরকালীন কল্যাণ সংরক্ষণকারী রূপে আবির্ভাব ঘটিয়েছেন।

আল্লাহ অতি দয়ালু।

আল্লাহ তা'আলা ব্যতীত কেউ তাঁর রহমতকে বাধাদান করার ক্ষমতা রাখে না। আর তিনি ব্যতীত কেউ রহমত অবতীর্ণও করতে পারে না। আল্লাহ তা'আলা বলেন: {আল্লাহ মানুষের জন্য অনুগ্রহের মধ্য থেকে যা খুলে দেন, তা ফেরাবার কেউ নেই এবং তিনি যা বারণ করেন, তা কেউ প্রেরণ করতে পারে না তিনি ব্যতীত। তিনি পরাক্রমশালী প্রজ্ঞাময়।}
[সূরা: ফাতির, আয়াত: ২]

আল্লাহ অতি দয়ালু এবং অপরিসীম মেহেরবান।



Tags: